1. news@dailydeshnews.com : Admin2021News :
  2. : deleted-txS0YVEn :
শনিবার, ০২ জুলাই ২০২২, ০২:৩২ অপরাহ্ন

আর্জেন্টিনা-ব্রাজিলকে মাঠে নামতেই হচ্ছে

দৈনিক দেশ নিউজ ডটকম ডেস্ক
  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ২২ জুন, ২০২২
  • ৩ পঠিত

কাতার ফুটবল বিশ্বকাপ-২০২২ এর আঞ্চলিক বাছাইপর্বে গত সেপ্টেম্বরে ব্রাজিলের মাটিতে মুখোমুখি হয়েছিল চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী আর্জেন্টিনা। কিন্তু ম্যাচের ৭ মিনিট খেলা গড়াতেই বন্ধ হয়ে গেছে সুপার ক্লাসিকো। বিশ্বব্যাপী করোনা মহামারি ধারণ করার ফলে ব্রাজিলের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে অভিযোগ আনা হয়েছিল, আর্জেন্টিনার চার খেলোয়াড় এমিলিয়ানো বুয়েন্দিয়া, এমিলিয়ানো মার্টিনেজ, জিওভানি লো সেলসো ও ক্রিশ্চিয়ান রোমেরো করোনার বিধিনিষেধ অমান্য করে মাঠে নেমেছে। খেলা চলাকালীন সেই চার খেলোয়াড়কে আটক করার জন্য মাঠে প্রবেশ করার ফলে বাছাইপর্বের ম্যাচটি স্থগিত হয়ে যায়। দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চল থেকে ইতোমধ্যে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনাসহ উরুগুয়ে ও ইকুয়েডর কাতার বিশ্বকাপের মূলপর্ব নিশ্চিত করেছে।

তবে বাছাইপর্বের দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর ম্যাচটি এখনো মাঠে গড়ায়নি। এই ম্যাচের মীমাংসা করার জন্য আগামী ২২ সেপ্টেম্বরের মধ্যে স্থগিত ম্যাচটি পুনরায় আয়োজন করার জন্য নির্দেশ দিয়েছে ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফা। স্থগিত ম্যাচটির স্বাগতিক দেশ ব্রাজিল হওয়ায় এই ম্যাচের ভেন্যুও ব্রাজিল ফুটবল ফেডারেশন (সিবিএফ) নির্ধারণ করবে। তবে এজন্য বেশি সময় হাতে নেই সিবিএফের। আগামী বুধবারের মধ্যে ভেন্যু ঠিক করে ফিফা ও আর্জেন্টিনা ফুটবল অ্যাসোসিসয়েশনকে জানাতে হবে সিবিএফের। আর্জেন্টিনা সম্মতি দিলেই কেবল চূড়ান্ত করা হবে সেই ভেন্যু।

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ম্যাচটির জন্য তিনটি ভেন্যুর চিন্তা করছে ব্রাজিল। প্রথমত ইউরোপের কোনো মাঠে। যার সুবাদে আর্জেন্টিনার বিপক্ষে ম্যাচের আগে-পরে অন্য কোনো দলের সঙ্গে একটি প্রীতিম্যাচও খেলতে পারে তারা। এটি সম্ভব না হলে দীর্ঘদিন ধরে অপেক্ষায় থাকা যুক্তরাষ্ট্রের ভেন্যুতে খেলার সম্ভাবনা আছে সেলেসাওদের। আর এ দুটির কোনোটিই না হলে নিজেদের দেশেই ম্যাচটি আয়োজন করবে পাঁচবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা। এক্ষেত্রে অবশ্য অন্য কোনো দলের বিপক্ষে আরেকটি প্রীতি ম্যাচ খেলা সম্ভব নাও হতে পারে। কেননা, আর্জেন্টিনার সঙ্গে আরেকটি দলকে স্বাগত জানানো বেশ কঠিনই হবে ব্রাজিলের জন্য। এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেয়ার জন্য গত সোমবার বৈঠকে বসেছিল ব্রাজিল ফুটবল ফেডারেশন।

তবে কোনো সিদ্ধান্তের কথা জানা যায়নি। বুধবার তারা আর্জেন্টিনা ও ফিফাকে আনুষ্ঠানিকভাবে জানালেই বোঝা যাবে, শেষ পর্যন্ত কোন মাঠে সুপার ক্লাসিকো ম্যাচটি হতে পারে। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে স্থগিত ম্যাচটির জন্য বিভিন্ন দিক থেকে শাস্তি ঘোষণা করে আনুষ্ঠানিক রায় দিয়েছিল ফিফা। সে সময়ই ম্যাচটি পুরোপুরি বাতিল না করে পুনরায় খেলার সিদ্ধান্ত জানিয়েছিল তারা। দুদলের জন্য সুখবরের পাশাপাশি দুঃসবাদও এসেছে। ম্যাচের সার্বিক দিক বিবেচনা করে আর্জেন্টিনার চার ফুটবলারকে দুই ম্যাচে নিষিদ্ধ ঘোষণার সঙ্গে দুদেশেরই এসোসিয়েশনকে অর্থদণ্ডে দণ্ডিত করেছে ফিফা। ফিফা কর্তৃক প্রকাশিত রায়ে প্রথমত নিরাপত্তা ও নির্দেশনা বিঘ্নের দায়ে ব্রাজিল ফুটবল এসোসিয়েশনকে ৫ লাখ সুইস ফ্রাঁ জারিমানা করেছে। এরপর যথাযথ কারণ না দেখিয়ে খেলোয়াড় মাঠে নামানোর দায়ে আর্জেন্টাইন এসোসিয়েশনকে ২ লাখ সুইস ফ্রাঁ জরিমানা করেছে। এই শাস্তির সঙ্গে ম্যাচটি পরিত্যক্ত করার অপরাধে দুদলকেই আরো ৫০ হাজার সুইস ফ্রাঁ জরিমানা করেছে ফিফা। সবশেষে কারণ না দেখিয়ে মাঠে নামানো আর্জেন্টাইন সেই চার খেলোয়াড় এমিলিয়ানো বুয়েন্দিয়া, এমিলিয়ানো মার্টিনেজ, জিওভানি লো সেলসো এবং ক্রিশ্চিয়ান রোমেরোকে আগামী দুই ম্যাচের জন্য নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে ফিফা। ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থাটির এ রায়ের বিপরীতে দুই ফুটবল এসোসিয়েশনই তাৎক্ষণিকভাবে অসন্তোষের কথা জানিয়েছে।

ফিফার রায়ের প্রতিক্রিয়ায় আর্জেন্টিনা ফুটবল এসোসিয়েশন এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, গত সেপ্টেম্বরে সেই ম্যাচকে ঘিরে দেয়া রায়টি পুনর্বিবেচনা করতে ফিফাকে অনুরোধ করা হচ্ছে। নিজেদের খেলোয়াড়দের পক্ষে লড়ব আমরা এবং পুরো ঘটনার সুষ্ঠু বিচার আদায় করব। অন্যদিকে ব্রাজিলের ফুটবল এসোসিয়েশনও আলাদা বিবৃতির মাধ্যমে জানিয়েছে রায়টি যেন ফিফা পুনর্বিবেচনা করে। সেই সঙ্গে প্রয়োজন পড়লে প্রক্রিয়া অনুসরণ করে যথাযথ পদক্ষেপ নেয়ার কথাও বলেছে তারা। ব্রাজিলের মাটিতে গত বছর ৫ সেপ্টেম্বর মাঠে নেমেছিল সফরকারী আর্জেন্টিনা। ম্যাচ শুরু ৭ মিনিট অতিক্রম হওয়ার পরই ব্রাজিলের জাতীয় স্বাস্থ্য রেগুলেটরি এজেন্সির ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর একাধিক কর্মকর্তা মাঠে ঢুকে পড়ে।

ইংল্যান্ড থেকে আসা মার্টিনেজ, রোমেরো ও লো সেলসোকে আটক করাই তাদের মূল উদ্দেশ্য ছিল। কেননা, ব্রাজিলিয়ান হেলথ রেগুলেটরি এজেন্সির নির্দেশনা অনুযায়ী আর্জেন্টাইন চার ফুটবলার কোয়ারেন্টাইন শর্ত অমান্য করে মাঠে নেমেছিল। আর্জেন্টিনা ও ভেনিজুয়েলায় যদি তারা ১৪ দিন কাটিয়ে আসতেন তাহলে আর আইন তাদের আটকাতে পারত না বলে জানিয়েছিল সাও পাওলোর স্বাস্থ্য বিভাগ। সেজন্যই মূলত ম্যাচটি পরিত্যক্ত হয়েছিল। ফিফা ও কনমেবল সেই ম্যাচটিতে আর্জেন্টিনাকে জয়ী ঘোষণা করে ৩ পয়েন্ট দিয়ে দেবে জানা গেলেও পরবর্তী সময়ে আর দেয়া হয়নি।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর
© All Rights Reserved © DAILY DESH NEWS.COM 2020-2022
Theme Customized BY Sky Host BD