1. news@dailydeshnews.com : Admin2021News :
  2. : deleted-txS0YVEn :
বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৯:০১ পূর্বাহ্ন

বাংলাদেশের একটা বড় ইতিহাসের সাক্ষী হয়ে থাকলো আমার মেয়ে: ফারুকী

বিনোদন ডেস্ক/দৈনিক দেশ নিউজ ডটকম
  • প্রকাশের সময় : বুধবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ৯ পঠিত

একমাত্র মেয়ে ইলহাম নুসরাত ফারুকীকে নিয়ে পুরো খেলা দেখেছেন মোস্তফা সরয়ার ফারুকী। বাঘিনীদের জয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট দিয়েছেন তিনি। ফারুকী লিখেছেন, আমি এবং আমার মেয়ে ঝিরঝিরে ব্রডকাস্টেও পুরো খেলা দেখেছি, হইচই করেছি, চিৎকার করেছি। আমি জানি না ও (ইলহাম) কিছু বুঝতে পারল কি না, বা বড় হয়ে মনে থাকবে কি না; বাংলাদেশের একটা বড় ইতিহাসের সাক্ষী হয়ে থাকল সে।

বাঘিনীদের অভিনন্দন জানিয়ে নির্মাতা লিখেছেন, অভিনন্দন বাংলাদেশ নারী ফুটবল দল। তোমরা সাফ চ্যাম্পিয়ন না হলেও আমাদের চোখে চ্যাম্পিয়নই থাকতে। সকল প্রকার মিসোজিনি, টীকা-টিপ্পনি, বাধা ডিঙিয়ে যে পথে তোমরা চলেছো, তাতে তোমরা প্রতিদিনেরই চ্যাম্পিয়ন।

প্রসঙ্গত, ২০১০ সাল থেকে প্রতিটি সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে খেলছে বাংলাদেশ। প্রথম সাফল্য আসে ২০১৬ সালের আসরে। সে বার বাঘিনীরা রানার্স আপ হয়েছিলেন। এবার এলো কাঙ্ক্ষিত সাফল্য। চ্যাম্পিয়নের শিরোপা নিজেদের ঘরে তুললেন সাবিনা খাতুন-কৃষ্ণা রানি সরকাররা। সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপের পুরো টুর্নামেন্টজুড়ে অপরাজিত থাকার পাশাপাশি ৫ ম্যাচ থেকে মোট ২৩ গোল আদায় করে নিয়েছিল বাঘিনীরা। বিপরীতে হজম করেছে মাত্র ১ গোল। সেটিও জমজমাট ফাইনালে।

বাবার সঙ্গে দেশের ফুটবলের ইতিহাসের অন্যতম বড় প্রাপ্তির সাক্ষী হলেন নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর মেয়ে ইলহাম। সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপের এবারের আসরে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হয়ে ইতিহাস গড়েছে বাংলাদেশ নারী ফুটবল দল। নেপালের দশরথের রঙ্গশালা স্টেডিয়ামে স্বাগতিকদের ৩-১ ব্যবধানে হারিয়েছে বাঘিনীরা। খেলার শুরু থেকেই বাঘিনীদের দিকে নজর ছিল ফুটবল প্রেমীদের। তাদের দুর্দান্ত খেলায় দর্শকের উত্তেজনার পারদ বাড়তে থাকে। অবশেষে বিজয়ের হাসিতে মেতে ওঠে পুরো বাংলা।

একমাত্র মেয়ে ইলহাম নুসরাত ফারুকীকে নিয়ে পুরো খেলা দেখেছেন মোস্তফা সরয়ার ফারুকী। বাঘিনীদের জয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট দিয়েছেন তিনি। ফারুকী লিখেছেন, আমি এবং আমার মেয়ে ঝিরঝিরে ব্রডকাস্টেও পুরো খেলা দেখেছি, হইচই করেছি, চিৎকার করেছি। আমি জানি না ও (ইলহাম) কিছু বুঝতে পারল কি না, বা বড় হয়ে মনে থাকবে কি না; বাংলাদেশের একটা বড় ইতিহাসের সাক্ষী হয়ে থাকল সে।

বাঘিনীদের অভিনন্দন জানিয়ে নির্মাতা লিখেছেন, অভিনন্দন বাংলাদেশ নারী ফুটবল দল। তোমরা সাফ চ্যাম্পিয়ন না হলেও আমাদের চোখে চ্যাম্পিয়নই থাকতে। সকল প্রকার মিসোজিনি, টীকা-টিপ্পনি, বাধা ডিঙিয়ে যে পথে তোমরা চলেছো, তাতে তোমরা প্রতিদিনেরই চ্যাম্পিয়ন।

প্রসঙ্গত, ২০১০ সাল থেকে প্রতিটি সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে খেলছে বাংলাদেশ। প্রথম সাফল্য আসে ২০১৬ সালের আসরে। সে বার বাঘিনীরা রানার্স আপ হয়েছিলেন। এবার এলো কাঙ্ক্ষিত সাফল্য। চ্যাম্পিয়নের শিরোপা নিজেদের ঘরে তুললেন সাবিনা খাতুন-কৃষ্ণা রানি সরকাররা। সাফ নারী চ্যাম্পিয়নশিপের পুরো টুর্নামেন্টজুড়ে অপরাজিত থাকার পাশাপাশি ৫ ম্যাচ থেকে মোট ২৩ গোল আদায় করে নিয়েছিল বাঘিনীরা। বিপরীতে হজম করেছে মাত্র ১ গোল। সেটিও জমজমাট ফাইনালে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর
© All Rights Reserved © DAILY DESH NEWS.COM 2020-2022
Theme Customized BY Sky Host BD